মেঘনাদবধ কাব্যে বিধি ও বিশ্ববিধান, লেখা মোবাশ্বের আলী
|

মেঘনাদবধ কাব্যে বিধি ও বিশ্ববিধান, লেখা মোবাশ্বের আলী

মেঘনাদবধ কাব্যে বিধি ও বিশ্ববিধান, লেখা মোবাশ্বের আলী এক স্বর্গ, মর্ত্য ও নরক, এই তিনের পটভূমিকায় ‘মেঘনাদবধ কাব্য’ বিরচিত এবং এই বিপুল বিশ্বের কেন্দ্রবিন্দুতে কাব্যের নায়ক রাবণ অবস্থিত। রাবণকে অবলম্বন করে এবং তারই মাধ্যমে এ কাব্যে বিশ্ববিধানের অমোঘ বিধিকে উদ্‌ঘাটিত করা হয়েছে। প্রচলিত ধর্মবোধ ও নীতিবোধের দিক থেকে আলোচনা করলে দেখা যায়, রাবণ সীতা অপহরণের…

ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো, রবীন্দ্রনাথের বিজয়া রবীন্দ্র-কবিতার মাঝে

ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো, রবীন্দ্রনাথের বিজয়া রবীন্দ্র-কবিতার মাঝে

ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো | রবীন্দ্রনাথের বিজয়া রবীন্দ্র-কবিতার মাঝে রবীন্দ্রনাথের গানের জগতে ‘বিদেশিনী’ শব্দটি অর্থবহ। ৩৫ বছর বয়সে কবি একটি গান লিখেছিলেন– আমি চিনি গো চিনি তোমারে ওগো বিদেশিনী তুমি থাক সিন্ধুপারে ওগো বিদেশিনী। (২৫ আশ্বিন ১৩০২) [ads id=”ads1″] গানটি ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর সঙ্গে অক্ষরে অক্ষরে মিলে যায়। শুধু তাই নয়, কবি এই গানটির ইংরেজি অনুবাদ ভিক্টোরিয়ার (কবির…

|

দ্বিতীয় ফ্রেডারিক আসলে কে? পড়তে জানে এমন এক মজুরের প্রশ্ন

দ্বিতীয় ফ্রেডারিক কে ? ‘পড়তে জানে এমন এক মজুরের প্রশ্ন’ পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাসংসদ কর্তৃক প্রকাশিত দ্বাদশ শ্রেণির ‘সাহিত্যচর্চা’ বইয়ের আন্তর্জাতিক কবিতা বিভাগে যে কবিতাটি গৃহীত হয়েছে সেটি হলো– জার্মান নাট্যকার ব্রের্টোল্ট ব্রেখ্‌টের ‘পড়তে জানে এক মজুরের প্রশ্ন’ কবিতা, কবি শঙ্খ ঘোষের অনুবাদে। মূল ইংরাজি কবিতার নাম, ‘Questions From a Worker Who Reads’. কবিতাটির একটি লাইন…

বিদ্রোহী কবিতা প্রথম কোন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়

বিদ্রোহী কবিতা প্রথম কোন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়

কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘বিদ্রোহী’ কবিতার প্রকাশকাল নিয়ে একসময় যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছিল, তার স্থায়ী মীমাংসা করে দিয়ে গেছেন স্বয়ং মুজাফফর আহমেদ। তাঁর স্বীকারোক্তির পর এই কবিতার প্রকাশকাল বিষয়ক সমস্ত বিতর্কের অবসান হয়েছে বলে মনে হয়। বিদ্রোহী কবিতা প্রথম কোন পত্রিকায় প্রকাশিত হয় ‘বিদ্রোহী’, কাজী নজরুল ইসলামের এই একটি মাত্র কবিতা বাংলা সাহিত্যের কত না…

|

নিরপরাধ ঘুম (শিকার) ও জীবনানন্দ, অপব্যাখ্যার নিরসন

‘শিকার‘ জীবনানন্দের উল্লেখযোগ্য কবিতাগুলির মধ্যে অন্যতম। এই কবিতায় ভোরের শান্ত স্নিগ্ধ পরিবেশে শহুরে হৃদয়হীন মানুষের নিক্ষিপ্ত গুলিতে বনের শোভা একটি হরিণের হত্যা এবং অনতিবিলম্বে তার খাদ্যে পরিণত হওয়ার নারকীয়, পাশবিক ঘটনাকে কবি সংহত আবেগ, সংক্ষিপ্ত ভাষায় বেঁধেছেন। এর মধ্যে দিয়ে আধুনিক মানুষের নৃশংস হৃদয়হীনতার দিকটিকে উদ্ভাসিত করার দিকেই কবির দৃষ্টি নিবদ্ধ। তা করতে গিয়ে কবিতার…

|

মনিয়া প্রসঙ্গ ও জীবনানন্দ, অপব্যাখ্যার নিরসন

“মনিয়া” ও জীবনানন্দ অর্থ সর্বদা নির্দিষ্ট থাকে না, বিশেষত কবির হাতে শব্দ তার প্রচল অর্থ হারিয়ে প্রায়শই নতুন অর্থ ধারণ করে। আর কবিতা এমনই এলাকা যেখানে প্রবেশ সাধারণের দুরধিগম্য। কবিতায় ব্যবহৃত শব্দ, অনুষঙ্গের তাৎপর্য ধরতে গেলে বুদ্ধি নয় — বোধ, প্রজ্ঞা এবং আবেগ লাগে। নয়তো অপব্যাখ্যার অন্ধকার পরিসর তৈরি হয়। এমন অপব্যাখ্যার অন্ধকার পরিসরে কবিতার…